'Study Abroad' - Planning Dilemma's
18 December 2018

বিশাল তর্ক চলছে দুই মাতাল এর মাঝে। একজন বলছে, "আকাশে দুটো চাঁদ দেখা যাচ্ছে।" অন্যজন বলছে, "না না, আকাশে তিনটা চাঁদ।"

ফয়সালা করার জন্য তারা পাশ দিয়ে হেটে যাওয়া তৃতীয় এক ব্যক্তিকে ধরলো। সেই ব্যক্তিও বিশষ্ট জনদরদী আরেক মাতাল। উনাকে তারা জিজ্ঞেস করলো, "আচ্ছা, বলুন তো ভাই, আকাশে কয়টা চাঁদ দেখা যাচ্ছে?"


সেই লোক নেশার চোখে অনেক্ষন আকাশের ডানে বামে দেখে বললো,

 "উত্তর দক্ষিনে পূর্ব পশ্চিম সব দিকেই তো খালি চাঁদ দেখতেসি। কোন সাইডের হিসাব জানতে চান??"


প্রথম দুই মাতাল তখন গম্ভির আলাপ করে সিদ্ধান্ত নিয়ে বললো, "পশ্চিমের টাই বলেন"


তৃতীয় মাতাল তখন বললেন, "পশ্চিমের আকাশে দেখতেসি পাঁচ টা চাঁদ"


দুই মাতাল তখন খুশি হলো। একজন বললো,

"তাইলে আমরা দুজনেই ঠিক। তোর দুইটা চাঁদ আর আমার তিনটা, মোট পাঁচটা চাঁদ। হিসাব ঠিকাছে তাইলে.."

::


উপরের গল্পটা একটু সস্তা টাইপের রসিকতা হয়ে গেলো?


কিন্তু এই গল্পের সাথে বর্তমানে বিদেশ পড়াশোনায় যেতে ইচ্ছুক ছেলেমেয়েদের কারো কারো পরিস্থিতির মিল আছে।


তারা নিজেরাই ঠিকমত জানে না সে কোন দেশে যেতে চায়? কোন দেশে গেলে তার জন্য ভালো হবে? কোন বিষয় তার সাথে মানাবে? তার চাহিদা অনুযায়ী কি ধরনের চাকরী এবং পড়াশোনা তার সাথে এডজাস্ট হবে?

 বন্ধুবান্ধব দের জিজ্ঞাসা করলে তারাও সঠিক নির্দেশ দিতে পারে না অনেক সময়। সেই দুই মাতালের মতই অবস্থা।


তৃতীয় মতামত নেবার জন্য তারা কনসালটেন্সি ফার্ম এর কাছে যায়। কিন্তু বেশ কিছু কনসাল্টেন্সি ফার্মের অবস্থা হচ্ছে সেই তিন নম্বর মাতাল এর মত। নিজেই স্বল্প অভিজ্ঞতা রোগে মাতাল। ঠিক পথে গাইড করতে পারে না।  কোন রকমে জোড়াতালি দিয়ে গাইডেন্স দিয়ে দেয়। ছেলেপেলে পরে গিয়ে বিপদে পড়ে।


বিপদে না পড়ে ভবিষ্যত গড়ার জন্য সবার উচিৎ ভালো এবং যোগ্য কনসালটেন্সি ফার্ম এর সাথে আলোচনায় যাওয়া।


তাহলে এবার প্রশ্ন হলো, আপনি কিভাবে যোগ্য কনসালটেন্সি ফার্ম খুঁজে নিবেন?


কমপক্ষে নীচের তিন টা ব্যাপার দিয়ে যদি যাচাই  করে নিতে পারেন, তাহলে আপনি সঠিক এজেন্সির সাহায্য পাওয়ার আশা রাখতে পারেন।


:::


প্রথমত দেখতে হবে #Professionalism


মনে রাখতে হবে যে আপনাকে হেল্প করবে এডুকেশন কনসালটেন্ট। ট্রাভেল এজেন্ট নয়।

একজন ট্রাভেল এজেন্ট আর এডুকেশনাল কনসালটেন্ট এক জিনিস না।


ধরুন একজনের খুব ভালো ট্রাভেল এজেন্টের ব্যাবসা। সে হঠাৎ ঠিক করলো যে এডুকেশন লাইনে দুইটা পয়সা কামানোর চেষ্টা করবে। ব্যস পরের দিন তার ট্রাভেল এজেন্সির অভিজ্ঞতা দিয়ে বিদেশে এডুকেশন কনসালটেন্সি শুরু করে দিলো। অর্থাৎ সে হয়ে গেলো ঐ তৃতীয় জনদরদী মাতাল।


এদেরকে এভয়েড করতে হবে আপনাদের।


গুগল সার্চ করে একটু ব্যাগ্রাউন্ড দেখে নিলেই বুুঝতে পারবেন কারা বহুদিনের পেশাগত এডুকেশন কাউন্সিলর আর কারা ট্রাভেল এজেন্ট এর নামে পার্ট টাইম এডুকেশন কনসালট্যান্ট।


:::


দ্বিতীয়ত দেখতে হবে #Experience


কনসালটেন্সি ফার্মের বয়স দেখতে হবে আপনাকে। যারা প্রফেশনাল কনসাল্টেন্ট এবং দীর্ঘদিন ধরে এ লাইনে আছে, তারাই আপনার লিস্ট এ প্রথমদিকে আসা দরকার।


কারনটা আশা করি বলে দিতে হবে না, কারন আমরা সবাই জানি যে অভিজ্ঞতা সবসময় ই অনেক বড় কিছু। Nothing can Substitute Experience..


:::


তৃতীয়ত দেখতে হবে #Accountability


তারা "এনলিস্টেড এজেন্ট কিনা?" অথবা "ইউনিভার্সিটির অফিশিয়াল পার্টনার কিনা?" এ বিষয়টা মাথায় রাখা খুবই জরুরী। এটাকেই বলে একাউন্টিবিলিটি।


আপনি বিদেশে যেই ইউনিভার্নিটি তে পড়তে ইচ্ছুক, আপনার কনসালট্যান্সি ফার্ম কি তাদের এনলিস্টেড অফিশিয়াল পার্টনার বা এজেন্ট? এ ব্যাপারটা নিশ্চিৎ হতে হবে আপনার।


এখন সমস্যা হলো সবাই ই দাবী করবে যে তারা অমুক অমুক বড় ইউনিভার্সিটির এনলিস্টেড এজেন্ট। কিন্তু তারা দাবী করলেই হবে না। আপনাকে বুদ্ধিমান হতে হবে। সেই ইউনিভার্সিটির ওয়েব পেইজ এ গিয়ে চেক করতে হবে যে আপনার কনসালটেন্সি ফার্ম কে তারা অফিশিয়াল পার্টনার হিসেবে ডিক্লেয়ার করেছে কিনা?  নাকি ফার্ম আপনাকে মিথ্যা বলছে?


:::


আশা করি এই তিনটি বিষয় কে প্রাধান্য দিয়ে সবাই কনসালটেন্সি ফার্ম চয়েজ করে এগিয়ে  যাবেন।


পরের লেখায়, কি কি উপায়ে একটা যোগ্য কনসালটেন্সি ফার্ম আপনাকে সাহায্য করতে পারে, আপনার বিদেশে পড়াশোনার ব্যাপারে একজন বড় সাপোর্ট হয়ে দাড়াতে পারে সেটা বোঝাবো।


______________________________